Judgment : High Court Division
(If you feel problem with font, please, download Bangla font from Downloads Link)
 
Case Category : 
Case Type
Case Number
Year
Parties
Short Description
 

Case Number Parties Short Description
251
The State Vs. R.D.O of 105 Touhidul alam, C.S-01 and others 151 persons with other appellants and respondent
BDR Case (Mr. Justice Md. Shawkat Hossain)
252
The State Vs. R.D.O of 105 Touhidul alam, C.S-01 and others 151 persons with other appellants and respondent
BDR Case (Mr. Justice Md. Abu Zafor Siddique)
253
The State Vs. R.D.O of 105 Touhidul alam, C.S-01 and others 151 persons with other appellants and respondent
BDR Case (Mr. Justice Md. Nazrul Islam Talukder)
254
Mohammad Manjurul Alam Vs. Govt. of Bangladesh
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh.
255
Md. Iftekhar Husain Chowdhury
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh.
256
Rawshan Ali and others Vs. Govt. of Bangladesh
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh
257
Mohammad Manjurul Alam
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh
258
Abul Kalam Azad and others
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh
259
Reaj Parvej and others
An application under Article 102 of the Constitution of the People’s Republic of Bangladesh.
260
Karnafully Fertilizer Company Limited Vs. Govt. of Bangladesh
261
Md. Giasuddin VS Govt. of Bangladesh
262
Md. Shahjamal Sardar and others VS Govt. of Bangladesh
263
Human Rights and Peace for Bangladesh (HRPB) represented by its Secretary-in-charge and others. Vs. Bangladesh represented by the Cabinet Secretary, Cabinet Division and others.
264
Sree Bhuban Chandra Sutradhar and others VS Md. Afroj Afgan Choudhury and Others
265
Md. Mofazzal Hossain and others Vs. Bangladesh, represented by the Deputy Commissioner, Gazipur
266
Mir Mohammad Helal Uddin Vs. The State and another
267
নিগার সুলতানা বনাম বাংলাদেশ সরকার গং
কোন ভুক্তভোগীর অভিযোগের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যদি দ্রুত পদক্ষেপ ও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে সেক্ষেত্রে একদিকে যেমন অনেক অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি এড়ানো সম্ভব হবে, অন্যদিকে ভুক্তভোগীদের মানসিক যাতনা, আর্থিক ক্ষতি এবং আদালতের দ্বারস্থ হওয়া থেকে রেহাই দেয়াও সম্ভব হবে।. . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . . সে কারণে, আদালত প্রত্যাশা করে যে, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ উত্থাপিত হলে ঐ অভিযোগ সম্পর্কে দ্রুততার সাথে বিভাগীয় তদন্ত সম্পন্ন এবং দোষী প্রমাণিত হলে দ্রুত আইনানুগ (বিভাগীয়/ফৌজদারী) পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। আদালতের এ প্রত্যাশা বিবেচনায় নিয়ে মহা-পুলিশ পরিদর্শক এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং ‘আইজিপি কমপ্লেইন্টস্ মনিটরিং সেল’র কার্যক্রমকে আরো কার্যকর ও গতিশীল করবেন মর্মে আদালতের দৃঢ় বিশ্বাস।
268
Md. Anis Hossain Prodhan alias Anis Hasan Prodhan alias Dollar Vs. The State, represented by the Deputy Commissioner Lalmonirhat
The main criteria for constituting an offence under section 57 of the Act is that the fake or obscene information/comments or materials shall have to be published or transmitted for public in general in the website or electronic form, not for any particular individual. Accordingly, we can safely conclude that mere sending obscene or fake information through SMS from one’s cellular phone to another individual’s cellular phone cannot be construed as a publication or transmission for public in general and hence, does not constitute an offence under section 57 of the ICT Act.
269
Md. Mahmudul Hasan Vs. The State
Necessity of the Lawyer`s certificate
270
Md. Asaduzzaman -Vs- The State
at the investigation stage the investigation officer has no authority to adjudicate on the propriety or credibility of a statement made by an accused under section 164 of the Code of Criminal Procedure. It has to be taken into consideration by the investigating officer as it is. It is the duty of the trial judge to examine and asses the truth, veracity and voluntariness of a statement under section 164 of the Code of Criminal Procedure made by an accused. An investigating officer cannot steps into the shoes of a trial judge.
271
Md. Waliullah Apu Vs. Government of the People’s Republic of Bangladesh and others
Taking notice of the above scenario, we are also constrained to direct the 1) Secretary, Cabinet Division, 2) the Secretary (সুরক্ষা ও সেবা), Ministry of Home Affairs and all the 3) District Magistrate to take necessary steps for providing the certified copies of the documents and order passed by the Executive Magistrate acted under Mobile Court Act,2009 to the concerned person/convict within a period of 05(five) days from the date of receiving the application for the same
272
সিফার্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ লিমিটেড বনাম জিয়াসু সিটিজ ইসেন কোঃ লিঃ
273
মো: মাসুদুল হক মাসুদ বনাম রাষ্ট্র
উপরোক্ত আলোচনা এবং সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় আদালত আদেশ প্রদান করছে যে, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনের ধারা ৪৪ অনুসারে ট্রাইব্যুনাল প্রতিষ্ঠা কিংবা গেজেট প্রকাশের মাধ্যমে বিকল্প আদালতকে ক্ষমতা না দেয়া অথবা ট্রাইব্যুনাল সংক্রান্ত আইনের বিধান সংশোধন না হওয়া পর্যন্ত মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর অধীনে দায়েরকৃত সকল মামলার বিচারিক কার্যক্রম ফৌজদারী কার্যবিধি ধারা ৫(২) অনুসরনে ঐ কার্যবিধির ২য় তপসিলে উল্লেখিত “অন্যান্য আইনসমূহের অধীনে অপরাধ (offences against other laws)” বিধান অনুযায়ী পরিচালিত হবে।
274
মোঃ নাজমুল হুদা ওরফে নাজমুর হুদা বনাম রাষ্ট্র ও অন্য
বিজ্ঞ দায়রা জজ, নড়াইল ফৌজদারী কার্যবিধির ২৬৫সি ধারার দরখাস্তটি নিষ্পত্তির সময়ে মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র, সাক্ষীদের ফৌজদারী কার্যবিধির ধারা ১৬১ অনুসারে প্রদত্ত জবানবন্দীসমূহ, সুরতহাল ও ময়না তদন্ত প্রতিবেদন অর্থ্যাৎ মামলার নথি ও তদ্সঙ্গে দাখিলকৃত কাগজাদি আদৌ বিবেচনায় না নিয়ে শুধুমাত্র আসামী পক্ষের আত্মসমর্থনের কাগজাদি/বক্তব্য এবং পেশাগত অবস্থান বিবেচনায় নিয়ে প্রতিপক্ষ নং-২ কে মামলা হতে অব্যাহতি দেয়ার বিষয়টি আমাদের কাছে শুধু বিষ্ময়করই মনে হয়নি বরং বিজ্ঞ দায়রা জজের দায়রা মামলা পরিচালনার যোগ্যতা এবং ফৌজদারী আইন সম্পর্কে তাঁর জ্ঞান ও ধারনা সম্পর্কে যুক্তিসংগত সন্দেহের (reasonable suspicion) সৃষ্টি করেছে।
275
Md. Jony Chowdhury Vs. The State and another
The Negotiable Instruments Act, 1881 (shortly N.I. Act) is silent about compromise of offences under the Act. But the Act does not make any provision therein prohibiting such compromise. Be that as it may, since N.I. Act proceeding arises out of monetary transaction and the proceeding is a quasi civil and quasi criminal in nature and maximum sentence under the law is one year inasmuch as that our criminal administration encourages compromise at any stage of the proceeding as well as at appellate and revisional stage, I am of the view that the dispute between the parties in N.I Act proceeding may be resolved out of Court by the parties on compromise and the same should be allowed by the Court at any stage of the proceeding even at appellate and revisional stage.
276
Md. Selim and another Vs. The State
(a) The Court of Sessions/ Magistrates are empowered to grant bail to a convicted person against whom such court sentenced to imprisonment for a term not exceeding one year with a view to giving the convicted person an opportunity to prefer appeal to higher forum after fulfilling the requirements under section 426(2A) of the Code of Criminal Procedure.
(b) The Court of Sessions/ Magistrates have got no jurisdiction to grant bail to a convicted person under section 426(2A) of the Code of Criminal Procedure when the sentence of imprisonment exceeds one year.
(c) No appellate court or it’s inferior court is empowered to grant bail to a convicted person whose sentence of imprisonment has been affirmed/modified in appeal by the appellate court with a view to giving the convicted person an opportunity to prefer revision to higher forum.
(d) No Magistrate shall have jurisdiction to grant a convicted person on bail against whom a sentence of imprisonment has passed by its superior court.
277
Mohammad Abdul Kader alias Karim Vs. The State
Section ‘138A’ has been inserted in Negotiable Instruments Act, 1881 by section 3 of the Negotiable Instruments (Amendment) Act, 2006 (Act No. III of 2006). The provision of section 138A is clear and unambiguous. By inserting section 138A in the original NI Act, 1881 the parliament has intentionally made a bar in preferring an appeal against any order of sentence under sub-section (1) of section 138. By using the words “notwithstanding anything contained in the Code of Criminal Procedure, 1898” and the words “unless an amount of not less than fifty per cent of the amount of the dishonored cheque is deposited before filing the appeal in the Court which awarded the sentence” clearly suggest that the provisions of the code of criminal procedure in respect of preferring appeal under NI Act will not be applicable and before filing the appeal 50% of the amount of the dishonored cheque is to be deposited in the Court which awarded the sentence ( underlined to give emphases). The Court which awarded the sentence specifically indicates that said amount must be deposited in the Court who awarded the sentence, nothing more nothing less inasmuch as that after awarding sentence under sub-section (1) of section 138, receipt of even total dues by the complainant from the convict will not fulfill the requirement of section 138A of the NI Act.
278
আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি বনাম রাষ্ট্র
উপরোক্ত বিবেচনায় আদালতের সুচিন্তিত অভিমত এই যে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তিদের আদালতে উপস্থাপনের পূর্বেই গণমাধ্যমের সামনে উপস্থাপন এবং কোন মামলা তদন্ত চলাকালীনসময়ে তদন্ত বিষয়ে কতটুকু তথ্য গণমাধ্যমের সামনে প্রকাশ করা সমিচীন হবে সে সম্পের্কে একটি নীতিমালা অতিদ্রুততার সাথে প্রনয়ন করা বাঞ্ছনীয়। এই নীতিমালা প্রণয়ন ও যথাযথভাবে অনুসরনের জন্য সচিব, জননিরাপত্তা বিভাগ/ সুরক্ষা বিভাগ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং মহা পরিদর্শক, পুলিশ-কে নির্দেশ প্রদান করা হলো।
279
Mahfuzar Rahman Vs. Moshiur Rahman and another
On a combined reading of sub-rules (3) and (4) of rule 1 of Order XVII of the Code of Civil Procedure, it appears that the law in clear terms curtailed the power of the Court in granting adjournment prayers of the parties to the suit. If the Court, before or after peremptory hearing of a suit, allows adjournment to a party with costs with a direction to deposit the same within some specified time in exercising power under sub-rules (3) and (4) and the plaintiff fails to comply with such order, the Court shall have no option but to dismiss the suit and in case of defendant, dispose of the suit ex-parte.

It is settled principle that when a provision of law in a statute is amended by a subsequent-Amendment Act and such amended provision comes into force, the subsequent amended provision becomes part of the original statute.
280
মো: হৃদয় বনাম রাষ্ট্র
আমাদের বলতে দ্বিধা নেই যে, শিশু আইনের ধারা ১৫ক-এর বিধান বিশেষ ক্ষমতা আইন ১৯৭৪ এর ধারা ২৭, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০-এর ধারা ২৭, এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন, ২০১৮ এর ধারা ৪৮-সহ বিভিন্ন বিশেষ আইনের সাথে শুধু অসংগতিপূর্ণ নয়, সাংঘর্ষিকও বটে।
শিশু আইনের প্রাধান্যতার কারনে যদি যুক্তি দেয়া হয় যে, থানার দায়েরকৃত মামলা অর্থাৎ জি.আর মামলার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট ম্যাজিস্ট্রেট অপরাধ আমলে গ্রহণ করবেন তাহলে সেটা হবে শিশু আইন প্রনয়নের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যের পরিপন্থী। শুধু তাই নয়, একই আইনের অধীনে শিশুর বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে গ্রহণ করবেন ম্যাজিস্ট্রেট, আর প্রাপ্ত বয়স্কদের বিরুদ্ধে অপরাধ আমলে গ্রহণ করবে সংশ্লিষ্ট ট্রাইব‌্যুনাল বা ক্ষেত্রমত, আদালত, যা বাস্তবতা বিবর্জিত(impractical) এবং অদ্ভুত বা অস্বাভাবিক(peculiar) একটি প্রস্তাবনা (proposition)
উপরোক্ত আলোচনা এবং সার্বিক অবস্থা বিবেচনায় আদালতের সুচিন্তিত, পর্যবেক্ষণ ও অভিমত এই যে, শিশু আইনে সাংঘর্ষিক অবস্থা, বিদ্যমান অসংগতি, অস্পষ্টতা ও বিভ্রান্তি অবিলম্বে দূর করা প্রয়োজন; এবং আদালত এটাও প্রত্যাশা করছে যে, এ লক্ষ্যে সরকার দ্রুততার সাথে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। সরকার শিশু আইন সংশোধন অথবা শিশু আইন ২০১৩-এর ধারা ৯৭ -এর বিধান মূলে গেজেটে প্রজ্ঞাপন দ্বারা অস্পষ্টতা ও অসংগতি দূর করতে পারে।
281
Md. Shahinur Rahman vs Government of Bangladesh
Directions to provide protocol to all VIPs.
282
মো: রাহেল ওরফে রায়হান বনাম রাষ্ট্র
আমাদের অভিজ্ঞতা হলো যে, ধর্ষণ সংক্রান্ত মামলার আসামীগণ অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বেপরোয়া ও দুর্দান্ত প্রকৃতির। এরা ভিকটিম ও তাঁর পরিবারের উপর চাপ-প্রভাব বিস্তার করে আদালতে সাক্ষ্য প্রদানে ভয়-ভীতি, প্রলোভন-সহ বিভিন্ন ধরণের কূটকেৌশল অবলম্বন করেন। ক্ষেত্র বিশেষে সালিশের নামে সামাজিক বিচার করে ভিকটিম ও তাঁর পরিবারকে মামলা প্রত্যাহারে বাধ্য এবং আদালতে সাক্ষ্য প্রদানে বিরত থাকার জন্য চাপ প্রদান করে থাকে।
উপরোক্ত অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে আদালতের সুচিন্তিত অভিমত এই যে, অবিলম্বে সাক্ষী সুরক্ষা আইন প্রনয়ন করা প্রয়োজন এবং আদালত এটাও প্রত্যাশা করছে যে, সরকার দ্রুততম সময়ে উক্ত বিষয়ে আইন প্রনয়ন করবে।
283
Begum Khaleda Zia
Rejection of the bail application.
284
ইনজামামুল ইসলাম ওরফে জিসান বনাম রাষ্ট্র
এমতাবস্থায়, নিম্ন আদালতের বিজ্ঞ বিচারকগণের, যাঁরা উচ্চতর ডিগ্রী অর্জন বা পেশাগত উচ্চতর কোর্স সম্পন্ন করেছেন বা করবেন, বিচারকার্যক্রমে বিশেষত: রায়, আদেশ, অর্ডারশীটে তাঁদের নামের অংশ হিসেবে ডিগ্রী উল্লেখ বাঞ্ছনীয়/কাম্য নয়। এটা প্রত্যশা করা ন্যায্য হবে যে, সংশ্লিষ্ট বিচারকগণ স্বীয় বুদ্ধিমত্তা ও প্রজ্ঞা দিয়ে বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে নামের অংশ হিসেবে উচ্চতর ডিগ্রীর ব্যবহার থেকে নিজেদের বিরত রাখবেন।
285
Md. Nazmul Huda Vs. The State and another
Moreso, the word `অভিযোগটি অনুসন্ধানের জন্য` as contemplated in section 27(1ka) is very significant. It means that an inquiry should be done on the allegations brought against an accused. It does not mean that inquiry should be done to ascertain whether the complainant went to the police station and he/she was refused by the police.
Further, when upon an inquiry by a competent person the allegations made against an accused is prima facie found to be true then the concerned accused should not be given a go by merely on any hiper technical issue.
286
হিউম্যান রাইটস এন্ড পিস ফর বাংলাদেশ বনাম বাংলাদেশ সরকার ও অন্যান্য
287
মোঃ সফিকুল ইসলাম বনাম রাষ্ট্র ও অন্য
যৌতুকের দাবীসহ যেকোন অজুহাতে স্বামী কর্তৃক স্ত্রীর উপর শারীরিক নির্যাতন নিঃসন্দেহে নিন্দনীয় এবং গর্হিত অপরাধ। এতদ্ সত্ত্বেও উক্ত অপরাধ সংগঠনের পর যদি স্বামী ও স্ত্রী নিজেদের মধ্যে ভুলবোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে দাম্পত্য জীবন অব্যাহত রাখার সংকল্প ব্যক্ত করেন বা রাখেন সেক্ষেত্রে আইনের বিধান যতো কঠিনই হোক না কেন একটি সংসার রক্ষা করার চাইতে সেটি বড় হতে পারে না। একটি সংসার ভেঙ্গে গেলে তার পারিবারিক ও সামাজিক নেতিবাচক দিক সুদূর প্রসারী। এতে শুধু স্বামী-স্ত্রীর সামাজিক, পারিবারিক ও অর্থনৈতিক বিপর্যয়ই ঘটেনা, তাঁদের সন্তান এমনকি নিকট আত্মীয় স্বজনের উপরেও এর গভীর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে, যা পূরণ করা খুব কঠিন কাজ হয়ে পড়ে। এই বাস্তবতায় আমাদের উচিৎ হবে ন্যা য়বিচার নিশ্চিত (to secure ends of justice) করার স্বার্থে অত্র মামলায় বর্তমান বাস্তব অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে একটি সংসার ও দরখাস্তকারী-অভিযোগকারীনির শিশু সন্তানের সুন্দর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ফৌজদারী কার্যবিধির ৫৬১-ক ধারার প্রদত্ত ক্ষমতাবলে পক্ষদ্বয়ের আপোষের অভিপ্রায়কে গুরুত্ব দিয়ে দন্ডিত দরখাস্তকারীর দন্ড বাতিল ও সাজা মওকুফ করা।
288
Moudud Ahmed, son of late Maulana Momtazuddin Ahmad Vs. The State and another
Direction given from the Supreme Court upon the subordinate judiciary is not directory rather it is mandatory.
289
The State Vs. M. Wahidul Haque and others
290
The State Vs. Md. Firoz Alam and others
Directives for the lower judiciary how to provide the protocol service to the Supreme Court Judges`
291
Begum Khaleda Zia Vs. The State and another
Admittedly the Trust was formed of two sons and one near relative of Begum Zia presumably, they did it with culpable suzerainty and on explicit endorsement of Begum Zia. The facts unveiled suggest the conclusion that Begum Zia knowingly and in violation of obligation, allowed the fund to be dealt with dishonestly by the Trust leading to its misappropriation.
It is not believable that without the knowledge and endorsement of Begum Zia the fund was so transferred in the accounts of other convict persons. For Begum Zia in no way can be exonerated of liability and obligation of such dishonest intention. Besides, Begum Zia was the key person on deliberate failure and endorsement of whom the fund was eventually misappropriated.
Today, corruption which includes financial crime also in our country not only poses a grave danger to the concept of good governance, it also threatens the very foundation of the democracy, social justice and the Rule of Law. It is beyond controversy that where corruption begins all rights end. Corruption devalues human rights, chokes development and undermines justice, liberty, equality, fraternity which are the core values of our constitution. Thus, the duty of the court is to work in such a manner to strengthen the fight against corruption. Therefore, there is no scope to take a lenient view in awarding punishment to an accused against whom charge has been proved considering his/her social and/or political position.
292
The State Vs. Lt. Col. (Rtd.)Tarek Sayed and ors
293
The State Vs. Lt. Col. (Rtd.) Tarek Sayed and ors
294
Nazmul Huda and another Vs. The State and another
295
Begum Khaleda Zia, Former Prime Minister, wife of Shaheed President Ziaur Rahman Vs. Anti-Corruption Commission (ACC), Dhaka and another
It is the discretion of the trial Judge to exercise his power under section 540A of the Code of Criminal Procedure either on his own volition or any application filed by either of the party, the prosecution or defence.
296
A.K.M. Zakaria Hossain Choudhury Vs Chief Metropolitan Magistrate, Dhaka and others
297
The State -Vs- Md. Mazed and others
298
The State-Bipul Chandra Ray
299
The State Vs. Md. Abdul Mazid and another
300
Fazlus Sobhan Vs. The State and another
Thus, we are constrained to hold that the Anti-Corruption Commission being a statutory body has utterly failed to comply with and to pay due regard to the observations made by the Highest Court of the country which tantamount to demeaning and flouting the orders of the Court.
This Site is Visited :